বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ১০:১৬ পূর্বাহ্ন

কসবায় ওমিক্রন’ আতঙ্ক ৫ দক্ষিণ আফ্রিকা প্রবাসীর পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ

কসবায় ওমিক্রন’ আতঙ্ক ৫ দক্ষিণ আফ্রিকা প্রবাসীর পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ

আবুল খায়ের স্বপন

দক্ষিণ আফ্রিকায় উদ্ভূত করোনা ভাইরাসের নতুন ধরণ ‘ওমিক্রন’ আতঙ্কে কসবা উপজেলাবাসী। এ অবস্থা ঠেকাতে উপজেলা প্রশাসন সতর্ক রয়েছে। সদ্য দেশে আসা পাঁচ দক্ষিণ আফ্রিকা প্রবাসীকে নিজ বাসভবনে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন এবং প্রত্যেকের বাড়িতে নির্দেশনামূলক স্টিকার লাগিয়েছেন উপজেলা প্রশাসন। আজ বুধবার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে তাদের বাড়িতে গিয়ে করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

সরেজমিনে খাড়েরা ইউনিয়নের খাড়েরা গ্রামের আলমগীর হোসেন, বিনাউটি ইউনিয়নের সৈয়দাবাদ গ্রামের আল আমিন ও কসবা পৌর এলাকা গুরোহিত গ্রামের লোকমান হোসেনের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় তারা পরিবারসহ হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। উপজেলা প্রশাসন গত মঙ্গলবার তাদের বাড়িতে নির্দেশনামূলক স্টিকার লাগিয়ে এসেছে। এ নিয়ে এলাকার মানুষের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

কোয়ারেন্টাইনে থাকা আলমগীরের সাথে মুঠোফোনে কথা বললে তিনি জানান, তিনি পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ে ২০১৫ সাল থেকে গাড়িচালক পদে চাকুরী করছেন। গত সাড়ে তিন বছর পূর্বে মন্ত্রনালয়ের নির্দেশে তিনি পরিবারসহ দক্ষিণ আফ্রিকায় যান। সেখানে তিনি বাংলাদেশ দুতাবাসে কর্মরত ছিলেন। গত ১৮ নভেম্বর মন্ত্রনালয়ের নির্দেশে দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে বদলী হয়ে দেশে এসে পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ে কাজে যোগদান করেন। গত ২৮ ডিসেম্বর ১০দিনের ছুটি নিয়ে গ্রামে বাড়ি খাড়েরায় আসেন। তিনি জানান দক্ষিণ আফ্রিকায় থাকা অবস্থায় আমি ও আমার স্ত্রী ফাইজারের দু’টো টিকাই নিয়েছি। গত মঙ্গলবার কসবা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুদ উল আলম তাদের বাড়িতে গিয়ে তাদের খোজখবর নেন এবং তাদেরকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেন। আজ বুধবার (০১ ডিসেম্বর) সকালে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে করোনা পরীক্ষার জন্য তাদের সকলের নমুনা নেন।

এদিকে গুরোহিত গ্রামে লোকমান হোসেনের বাড়িতে গিয়ে জানা যায়, লোকমান গত ১৮ নভেম্বর দেশে আসেন। গত মঙ্গলবার উপজেলা প্রশাসন তাকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেয়। এবং আজ বুধবার (০১ ডিসেম্বর) সকালে করোনা পরীক্ষার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে স্বাস্থ্য কর্মী এসে নমুনা নিয়ে যায়।

কসবা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. অরুপ পাল জানান আজ বুধবার সকালে দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আগত প্রবাসী পাঁচজন ও তাদের সংশ্লিষ্ট পাঁচজনসহ মোট দশজনের করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

বুধবার (০১ ডিসেম্বর) দুপুরে কসবা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুদ উল আলম জানান, দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে সদ্য দেশে আসা কসবা উপজেলার খাড়েরা গ্রামের একই পরিবারের মো. হারিজ ভূইয়ার পুত্র মো. আলমগীর হোসেন ভূইয়া তার স্ত্রী তাহেরা বেগম ও তার পাঁচ বছরের কন্যা আলিশা বিনতে আলমগীর ও কসবা পৌর এলাকা গুরোহিত গ্রামের আরু মিয়ার পুত্র লোকমান মিয়া এবং বিনাউটি ইউনিয়নের সৈয়দাবাদ গ্রামের মো. আল আমিনকে তাদের নিজ বাসভবনে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তিনি জানান, আজ বুধবার সকালে তাদের এবং তাদের পরিবার সংশ্লিষ্ট মোট ১০জনের নমুনা সংগ্রহ করে করোনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। তাছাড়া তাদের সাথে উপজেলা প্রশাসন সার্বক্ষনিক যোগাযোগ রক্ষা করছেন।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




raytahost-demo
© All rights reserved © 2019
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD