মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ১১:০২ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪ (কসবা-আখাউড়া) আসনে আইন মন্ত্রী আনিসুল হক বে-সরকারি ভাবে নির্বাচিত কসবায় ভোট দিয়ে বাড়ি ফেরার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১ আহত-৪ কসবায় এলজিইডি’র শ্রেষ্ঠ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান আগরতলায় স্রোত আয়োজিত লোকসংস্কৃতি উৎসব কসবা প্রেসক্লাব সভাপতি’র উপর হামলার প্রতিবাদে মানবন্ধন ও প্রতিবাদ সভা কসবায় চকচন্দ্রপুর হাফেজিয়া মাদ্রাসার বার্ষিক ফলাফল ঘোষণা, পুরস্কার বিতরণ ও ছবক প্রদান শ্রী অরবিন্দ কলেজের প্রথম নবীনবরণ অনুষ্ঠান আজ বছরের দীর্ঘতম রাত, আকাশে থাকবে চাঁদ বিএনপি-জামাত বিদেশীদের সাথে আঁতাত করেছে-কসবায় আইনমন্ত্রী আনিসুল হক ১৩ দিনের জন্য ভোটের মাঠে নামছে সশস্ত্র বাহিনী
কসবায় প্রতিমায় রং তুলির শেষ আচড় দিচ্ছেন প্রতিমা শিল্পীরা

কসবায় প্রতিমায় রং তুলির শেষ আচড় দিচ্ছেন প্রতিমা শিল্পীরা

লিয়াকত মাসুদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া।।
কসবায় প্রতিমায় রং তুলির শেষ আচড় দিচ্ছেন প্রতিমা শিল্পীরা।
দুর্গাৎসবের আর মাত্র এক দিন বাকি। দুর্গাপুজোকে সামনে রেখে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলাব্যাপী চলছে প্রতিমায় শিল্পময় রঙের চূড়ান্ত প্রলেপ দেওয়ার কাজ। উপজেলার ৪৪ টি মন্ডপেই ইতোমধ্যে প্রতিমা তৈরি ও রঙের কাজ সম্পন্ন হয়ে গেছে। প্রতিমা শিল্পীরা ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রতিমা পরিচর্যা ও রঙের প্রলেপের শেষ মুহূর্তের কাজে। রঙ-তুলির অনুপম পরশে দেবি দুর্গাকে মোহনীয় সাজে সজ্জিত করা হয়েছে ইতোমধ্যেই। আবহাওয়া মোটামুটি সুপ্রসন্ন থাকায় প্রতিমা সম্পন্নের কাজে বিঘ্ন ঘটেনি কোথাও। উপজেলার বিভিন্ন মন্ডপ ঘুরে প্রায় অভিন্ন চিত্র লক্ষ্য করা গেছে। সবখানেই প্রতিমা তৈরি হয়ে গেছে।

রঙের কাজও শেষ। তারপরেও সৌন্দর্যবর্ধক কর্মের যেমন শেষ নেই। এটিও অনেকটা সেরকম। আজ সকল মন্ডপে রঙের কাজ শতভাগ শেষ হয়ে যাবে বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্টরা। এবার কোভিডজনিত বিরূপ পরিবেশে কঠোর স্বাস্থ্যবিধি ও শৃঙ্খলার মধ্য দিয়ে ভক্তবৃন্দ দেবি দুর্গাকে বরণ করবেন। কয়েকটি পুজোমন্ডপে যেয়েদেখা যায়, সেখানে প্রতিমা তৈরির কাজ শেষ। প্রতিমায় রঙের পরশও বুলানো হয়েছে। চলছে চূড়ান্ত কারুকাজ। প্রতিমা শিল্পীরা জানান, নজরকাড়া প্রতিমা গড়তে গেলে নিবিড় পরিশ্রম করতে হয়। আপন মনের মাধুরি মিশিয়ে সৃষ্টি করতে হয় প্রতিমার অবয়ব। রঙের মিশেলে শতভাগ দক্ষতা ও কারুকাজ দেখাতে হয়। সনাতন হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বড় উৎসব এই দুর্গাপুজোকে ঘিরে এখন প্রতিটি হিন্দু সম্প্রদায়ের ঘরে উৎসবের আমেজ।
হিন্দু ধর্মাবলম্বী সব বয়সী মানুষ সময় পেলেই চলে আসেন মন্ডপে প্রতিমার রঙের কাজ নিজ চোখে দেখতে। তাঁদের বিশ্বাস, পৃথিবীর সকল দুর্গতির অবসান ঘটিয়ে শান্তির বাতাবরণ দিতে দেবি দুর্গার মর্ত্যে আবির্ভাব ঘটে। তাই তো তিনি দুর্গতিনাশিনী। তাই দেবির মর্ত্যে অবস্থানের দিনগুলো তাদের বিশ্বাসমতে অতি তাৎপর্যপূর্ণ। সেকারণে একই সাথে আনন্দ ও শ্রদ্ধা প্রদর্শনের এই দুর্লভ সুযোগ ভক্তবৃন্দ ছাড়তে চান না। আনন্দ চিত্তে দেবিকে বরণ আর বেদনা বিধূর বিদায়-ভক্তগণকে মোহিত করে রাখে সারাটি বছর। প্রতীক্ষা থাকে পরবর্তী বছরে আবার দেবিকে বরণ করার বাসনা। আজ পূণ্য মহালয়ার মধ্য দিয়ে মর্ত্যধামে দেবি পক্ষের শুরু হবে। উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি দিলীপ রায় জানান, এ বছর কসবা উপজেলাতে ৪৪ টি পুজোমন্ডপে শারদীয় দুর্গাপুজো অনুষ্ঠিত হবে।
কসবা থানার অফিসার ইনচাজ লোকমান হোসেন জানান, শারদীয় দুর্গাপুজোয় এবার অনুষ্ঠিত ৪৪
টি পূজা মন্ডপে আড়ম্বরতা না থাকলেও ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ধর্মীয় উৎসব পালন করার আহবান জানানো হয়েছে। তিনি আরও জানান, এবার পুজোয় শান্তি-শৃংখলা বজায় রাখা এবং অপ্রীতিকর পরিস্থিতি যাতে সৃষ্টি না হতে পারে সেজন্য পূজা উদযাপন কমিটির কর্মকর্তাসহ স্বেচ্ছাসেবকদের সহযোগিতায় পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিরাপত্তার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




raytahost-demo
© All rights reserved © 2019
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD